IELTS – Int. Test Preparation

IELTS - International Test Preparation

[ Regular/Crash]
IELTS – Course Plan
In-Campus sessions 64
Online Parallel sessions 64
Partial Mock Test 30
Mock Test 03
Duration 2.5 Months (R) / 1 Month (C)
Fee TK. 15000 +VAT/ TK. 8000 +VAT

IELTS সম্পর্কে বিস্তারিত

IELTS Learnerইংরেজি ভাষার উপর দক্ষতা যাচাইয়ের জন্য আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত একটি পরীক্ষা IELTS। এর পূর্ণ রূপ International English Language Testing System. যাঁরা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে পড়াশোনা বা কাজ করতে যেতে চান অথবা Multinational Organization গুলোতে ভাল চাকরি করতে চান তাঁদের ইংরেজি ভাষার ওপর দক্ষতা প্রমাণের জন্য IELTS পরীক্ষা দেয়া উচিৎ । এতে সবখানে তাঁদের গ্রহণযোগ্যতা অনেকগুনে বাড়ে। যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র, নিউজিল্যান্ডসহ পৃথিবীর আরও অনেক দেশে পড়াশোনা বা কর্মসংস্থানের জন্য যেতে চাইলে আপনার প্রয়োজন হবে ভাল IELTS স্কোরের। আগে IELTS স্কোর শুধু ইউরোপের দেশগুলোতে গ্রহণ করা হতো। তবে এখন যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় তিন হাজার বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ এবং কানাডার অনেক বিশ্ববিদ্যালয় IELTS স্কোর গ্রহণ করে থাকে। যে কেউ এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন। এর জন্য বয়সের কোনো বাধ্যবাধকতা নেই, শিক্ষাগত যোগ্যতারও কোনো প্রয়োজন নেই। বাংলাদেশে IELTS পরীক্ষার Perfect প্রস্তুতি পরিচালনাকারী অন্যতম প্রতিষ্ঠান “i-Center for Excellence”

পরীক্ষা:

IELTS পরীক্ষা দেওয়া যায় Academic ও General Training মডিউলে। Academic মডিউলে পরীক্ষা দিতে পারবেন স্নাতক, স্নাতকোত্তর অথবা পিএইচডি পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা। যদি কোনো শিক্ষার্থী কারিগরি বিষয় বা প্রশিক্ষণে ভর্তি হতে চান, তবে তাঁকে General Training মডিউলে পরীক্ষা দিতে হবে। এ ছাড়া যাঁরা ইমিগ্রেশনের জন্য যেতে চান, তাঁদের General Training মডিউলে পরীক্ষা দিতে হবে। IELTS পরীক্ষা দেওয়ার আগে শিক্ষার্থীদের জেনে নেওয়া উচিত কোনো মডিউলে পরীক্ষা দিতে হবে। IELTS পরীক্ষায় দুই ধরনের মডিউলেই Listening, Reading, Writing & Speaking—এই চারটি অংশ থাকে। এগুলোর সংক্ষিপ্ত বিবরণ নিম্নে দেওয়া হলো।

Listening:

শুনে বোঝার ক্ষমতা যাচাই করা হয় এই অংশে। সিডি বা টেপ থেকে কথোপকথন শুনে এ অংশে প্রশ্নের উত্তর করতে হবে পরীক্ষার্থীদের। এখানে চারটি বিভাগে ৪০টির মতো প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়। পরীক্ষার সময় যেকোনো বিষয়ে বক্তৃতা, কথোপকথন বা অন্য কোনো বিষয় অডিও সিডি শোনানো হয়। এখান থেকে শুনেই পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নের উত্তর নির্ধারিত উত্তরপত্রে লিখতে হবে। ৩০ মিনিটের মতো পরীক্ষা হয় এবং শেষে অতিরিক্ত ১০ মিনিট সময় দেওয়া হয় সব উত্তর প্রশ্নপত্র থেকে উত্তরপত্রে লেখার জন্য। একটি বিষয় কেবল একবারই বাজিয়ে শোনানো হয়। এখানে সঠিক উত্তর বেছে নেওয়া, সংক্ষিপ্ত উত্তর, বাক্যপূরণ ইত্যাদি নানা ধরনের প্রশ্ন থাকতে পারে। বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করতে পারেন “i-Center for Excellence” এ।

Reading:

এক ঘণ্টায় তিনটি Passage থেকে ৪০টির মতো প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে পরীক্ষার্থীদের। এখানে বিভিন্ন জার্নাল, বই, সংবাদপত্র, ম্যাগাজিন থেকে কিছু অংশ তুলে দেওয়া হয়ে থাকে। এখান থেকে পড়ে উত্তর করতে হবে। এখানেও বাক্যপূরণ, সংক্ষিপ্ত উত্তর, সঠিক উত্তর খুঁজে বের করা ইত্যাদি প্রশ্ন থাকবে। পরীক্ষার্থী যখন প্রশ্নপত্র পড়বেন, তখন সুবিধার জন্য গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলো দাগ দিয়ে রাখলে উত্তর করতে সুবিধা হবে। “i-Center for Excellence” এই ক্ষেত্রে কিছু নির্দিষ্ট Smart Tricks ব্যাবহার করে, যাতে গ্রামারে কম ধারনা থাকলেও একটা ভাল স্কোর করতে পারার Confidence আপনার মাঝে তৈরি হয়।

Writing:

এখানে এক ঘণ্টায় দুটি প্রশ্নের (Task 1 & Task 2) উত্তর লিখতে হবে। দ্বিতীয় প্রশ্নটিতে প্রথম প্রশ্নের চেয়ে বেশি নম্বর থাকে। “i-Center for Excellence” এই Writing অংশের জন্য সেরাদের সেরা পদ্ধতি ব্যাবহার করে। Writing এ প্রথম প্রশ্নটিতে মোটামুটি ২০ মিনিট সময় দিতে পারেন। অন্তত ১৫০শব্দের (Not more than 170 words) উত্তর লিখতে হবে। আর দ্বিতীয় প্রশ্নটির উত্তর দিতে ৪০ মিনিট সময় নিতে পারেন। অন্তত ২৫০টি শব্দ (Not more than 280 words) লিখতে হবে। এই শব্দসংখ্যার কম লেখা উচিত হবে না।তা না হলে Band Score ১ কমে যাবে। প্রথম প্রশ্নে সাধারণত কোনো চার্ট, ডায়াগ্রাম থাকে। এ থেকে নিজের কথায় বিশ্লেষণধর্মী উত্তর লিখতে হয়। আর দ্বিতীয় প্রশ্নটিতে সাধারণত কোনো বিষয়ের পক্ষে মত বা যুক্তি উপস্থাপন করতে হয়।

Speaking:

এখানে তিনটি অংশে পরীক্ষার্থীদের মোটামুটি ১১ থেকে ১৪ মিনিটের পরীক্ষা দিতে হয়। এখানে প্রথমত পরীক্ষার্থীকে কিছু সাধারণ প্রশ্ন করা হয়। যেমন: পরিবার, পড়াশোনা, কাজ, বন্ধু ইত্যাদি। দ্বিতীয় অংশে একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে এবং দুই মিনিট কথা বলতে হয়। এর আগে প্রস্তুতির জন্য সময় দেওয়া হয় এক মিনিট। তৃতীয় অংশে রয়েছে কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ে পরীক্ষকের সঙ্গে চার-পাঁচ মিনিটের কথোপকথন।“i-Center for Excellence” এ শুধুমাত্র Speaking এর জন্য একটি ভিন্নধর্মী Classroom তৈরি করা হয়েছে, যা শুধু বাংলাদেশেই নয় সমগ্র এশিয়া মহাদেশে এই প্রথম। রয়েছে Unlimited Speaking Mock Test দেয়ার সুযোগ।

স্কোরিং:

১ থেকে ৯-এর স্কেলে IELTS-এর স্কোরিং করা হয়ে থাকে। চারটি অংশে আলাদাভাবে ব্যান্ড স্কোর দেওয়া হয়। এগুলোর গড় করে সম্পূর্ণ একটি স্কোরও দেওয়া হয়। এ পরীক্ষায় পাস বা ফেল হওয়ার কোনো বিষয় নেই। আপনার প্রয়োজনীয় স্কোর করতে পারলেই পরীক্ষা দেওয়ার উদ্দেশ্য সফল হবে। বাংলাদেশের বাইরে ভালো কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চাইলে সাধারণত ৬.৫ থেকে ৭.৫ পেতে হয়। কোনো কোনো বিশ্ববিদালয়ের ক্ষেত্রে ব্যান্ড স্কোরে পৃথকভাবে (Writing, Speaking, Listening, Reading) ভালো করতে হয়। সম্পূর্ণ স্কোর যত ভালোই হোক না কেন, একটি বিভাগে স্কোর কোন কারনে কমে গেলে ভর্তির সুযোগ হয়ে যেতে পারে হাতছাড়া। তাই পরীক্ষা দেওয়ার আগেই জেনে নিন আপনার ন্যূনতম স্কোর কত হওয়া প্রয়োজন তারপর আমাদের জানান। আপনাকে আপনার লক্ষ্যে “i-Center for Excellence” পৌঁছে দিবে।

IELTS-প্রস্তুতি:

IELTS পরীক্ষা নিয়ে উৎকণ্ঠার কিছু নেই। নিয়মিত প্রস্তুতি নিয়ে যথেষ্ট ভালো স্কোর করা সম্ভব। শুরুতেই আপনাকে লক্ষ্য ঠিক করে নিতে হবে। তবে ইংরেজিতে আপনার যে দক্ষতা আছে, সে অনুযায়ীই লক্ষ্য ঠিক করবেন। রাতারাতি ভালো স্কোর সম্ভব না । আবার ইংরেজিতে আপনি যথেষ্ট দক্ষ হলেই যে কোনো প্রস্তুতি ছাড়া পরীক্ষা দিয়ে আশানুরূপ ফল পাবেন, এমনটা নাও হতে পারে। রোজকার কাজের মধ্যেই অন্তত এক ঘণ্টা সময় বরাদ্দ রাখুন IELTS প্রস্তুতির জন্য। কত দিন ধরে প্রস্তুতি নেবেন, এটা আপনার দক্ষতার ওপর নির্ভর করবে। অন্তত তিন মাস সময় হাতে রাখা ভালো। প্রশ্নপত্র সমাধান করাটা প্রস্তুতির জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। ঘড়ি ধরে প্রশ্নপত্র সমাধান করুন। পরীক্ষার পরিবেশ পেলে একসঙ্গে সব অংশের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করুন। বাজারে অসংখ্য বই পাওয়া যায়। তবে সব বই নির্ভরযোগ্য নয়। এ পরীক্ষার জন্য কোচিং করবেন কি না এটা সম্পূর্ণ আপনার সিদ্ধান্ত। তবে যাই করুন না কেন সঠিক দিক নির্দেশনা ছাড়া বাড়িতে বসে নিজে নিজে IELTS পড়াশোনা করা অনেকটা অন্ধকারে আলো ছাড়া অনুমান করে হা্টার মত । তাই একটা কথা মনে রাখবেন, সফলতার জন্য দরকার বিশ্বাস; অনুমান নয়। ব্যাকরণের অনেক খুঁটিনাটি জানতে পারলে ভালো। আবার এমন অনেক বিষয়, যা স্কুল-কলেজে পড়েছেন কিন্তু এখন মনে নেই, তা প্রস্তুতির একপর্যায়ে ঝালিয়ে নিতে হবে। এ পরীক্ষা নিয়ে অনেকের কাছ থেকে অনেক রকম কথা শুনতে পাবেন। এতে দ্বিধা বা উৎকণ্ঠায় ভুগবেন না। IELTS সম্পর্কে যেকোনো সঠিক তথ্য পেতে সারাদেশে সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য মাধ্যম হলো “i-Center for Excellence” । কেননা ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় এর নিয়মনীতি এবং ব্রিটিশ কাউন্সিলের শিক্ষকদের সরাসরি তত্ত্বাবধানেই IELTS এর যাবতীয় প্রস্তুতি ও প্রস্তুতিমূলক পরীক্ষাগুলো “i-Center for Excellence” এ নেয়া হয়। “i-Center for Excellence” এর রিসোর্স সেন্টারে প্রস্তুতির জন্য সবসময় প্রচুর ভালো বই পাবেন। তবে এগুলো ব্যবহারের জন্য রিসোর্স সেন্টারের সদস্য হতে হবে। যেকোনো বইয়ের দোকান থেকে যেনতেন বই কিনে অর্থ ও সময় নষ্ট না করে “i-Center for Excellence” এর পরামর্শ নিন।

শুরুতেই সুযোগ বুঝে “i-Center for Excellence” এ এসে নিজেই কয়েকটি Assessment Test দিয়ে নিন। এতে নিজের দক্ষতা সম্পর্কে ধারণা পাবেন। কত নম্বর পেলে স্কোর কেমন হবে, এটা নিশ্চিত করে বলা যায় না। তবে “i-Center for Excellence” বা IELTS-এর ওয়েবসাইট থেকে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন।

Writing পরীক্ষায় যে কয় শব্দে উত্তর দিতে বলা হয়, সে কয় শব্দই লিখতে হবে। ভুল উত্তরের জন্য কোনো Negative Marking হয় না IELTS পরীক্ষায়। কাজেই পরীক্ষার্থীদের উচিত সব প্রশ্নের উত্তর দেওয়া। Speaking বিষয়ে ভালো করতে হলে বন্ধুবান্ধব, পরিচিতদের সঙ্গে ইংরেজিতে কথা বলার অভ্যাস করুন। এ পরীক্ষার জন্যই নিয়মিত প্রস্তুতি নেওয়া সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। “i-Center for Excellence” এর দিকনির্দেশনা মতো প্রশ্নপত্র সমাধান করে আপনি নিজেই অনেকখানি মূল্যায়ন করতে পারবেন যে আপনি এখন কোথায় আছেন এবং আপনাকে কতদূর যেতে হবে। তবে আরও নির্ভরযোগ্যতার জন্য IELTS কোর্সের শেষে মক টেস্ট (Mock Test) দিতে পারেন। তখন যদি কোন সমস্যা থাকে তাহলে আপনার সমস্যাগুলো সমাধান করবেন আমাদের Expert Panel । ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ন্ত্রণে প্রতি মাসেই ব্রিটিশ কাউন্সিলে IELTS টেস্টের আয়োজন করা হয়ে থাকে। আমাদের Mock test এর আসনসংখ্যা সীমিত। সে জন্য Mock test দিতে আগ্রহীদের “i-Center for Excellence” (01877-050607) এ যোগাযোগ করে আসতে হবে।

এক দিনের Workshop (কর্মশালা)

এই Workshop (কর্মশালা) IELTS পরীক্ষার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ছয় ঘণ্টাব্যাপী পরিচিতিমূলক আলোচনা করা হয়। আলোচনার অন্তর্ভুক্ত বিষয়গুলো হলো পরীক্ষা পদ্ধতি, পরীক্ষার ধরন, পরীক্ষাসম্পর্কিত সহজ কৌশল, পরীক্ষার অনুশীলন। এই কর্মশালায় শুধু যাঁরা পরীক্ষার জন্য নিববন্ধন (রেজিস্ট্রেশন) করেছেন, তাঁরা একটি নির্দিষ্ট ফি দিয়ে অংশ নিতে পারবেন।

প্রস্তুতিমূলক ক্লাস:

পরীক্ষার্থীদের জন্য “i-Center for Excellence” এর প্রস্তুতিমূলক কোর্সের ব্যবস্থা রয়েছে। IELTS পরীক্ষায় ভালো স্কোর অর্জনে “i-Center for Excellence” এই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে থাকে।

কোথায়, কীভাবে দেবেন পরীক্ষা?

বাংলাদেশে ব্রিটিশ কাউন্সিলের আয়োজনে IELTS পরীক্ষা দেওয়া যায়। প্রতি মাসেই নির্দিষ্ট তারিখে দুই-তিনবার পরীক্ষা দেওয়া যায়। ওয়েবসাইট থেকে অথবা ফোন করে পরীক্ষার তারিখ জেনে নিতে পারেন। পরীক্ষার আসন সংখ্যা সীমিত। যে তারিখে পরীক্ষা দেবেন, তার অন্তত দেড় মাস আগে নিবন্ধনের জন্য যোগাযোগ করতে হবে। দুই সপ্তাহের মধ্যে পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়। পরীক্ষার ফি ১৫ হাজার ৮০০ টাকা। পরীক্ষা দেওয়ার জন্য পাসপোর্ট এবং দুই কপি পাসপোর্ট আকারের রঙিন ছবি লাগবে। ছবি ছয় মাসের বেশি পুরোনো হলে তা গ্রহণ করা হবে না। চশমা পরা ছবিও গ্রহণযোগ্য নয়। IELTS স্কোরের মেয়াদ দুই বছর। এরপর প্রয়োজনে আবার পরীক্ষা দিতে হবে। স্কোর আশানুরূপ না হলে পরীক্ষার্থীরা আবার যেকোনো সময় পরীক্ষা দিতে পারবেন। ব্রিটিশ কাউন্সিলের আয়োজনে ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী এবং সিলেটে পরীক্ষা দেওয়া যায়।

British Council Address | Bangladesh

ঢাকা Phone: 09666773377 Hotline: 8801711-439-026
চট্টগ্রাম Phone: 09666773377 Hotline: 8801713-103-639
সিলেট Phone: (0821) 727343 Hotline: 8801730-334-023
ওয়েবসাইট:  http://www.britishcouncil.org/bangladesh
IELTS-এর ওয়েবসাইট: http://www.ielts.org

 

“i-Center for Excellence স্টেশনারি প্যাক

IELTS পরীক্ষার জন্য রেজিস্ট্রেশন করলে পরীক্ষার্থীদের ফ্রি একটি স্টেশনারি প্যাক উপহার দেওয়া হয়।
কোথায় করবেন রেজিস্ট্রেশন
IELTS পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য ব্রিটিশ কাউন্সিলের ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। অথবা আপনি যদি সরাসরি করতে চান, সে ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশন পয়েন্টগুলো থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ করে তা দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করা যেতে পারে। তা ছাড়া “i-Center for Excellence” এর বিভিন্ন শাখায় রেজিস্ট্রেশন পয়েন্ট রয়েছে, সেখানে পরীক্ষার্থীরা রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

ielts course in bd

ভর্তি ফি

পরীক্ষার্থীরা i-center এর IELTS কোর্সে  (Regular Batch Fee = 15000/-) আর (Crush Batch Fee = 8000/-) টাকায় রেজিস্ট্রেশন ও ভর্তি হতে পারবেন।

ব্রাঞ্চ ঠিকানা ফোন নম্বর
ফার্মগেইট (কর্পোরেট অফিস) ১৪৭ / ডি, গ্রীনরোড।

(ফার্মগেইট আইবিএ হোস্টেলের দক্ষিণ দিকে সোনারগাঁও বিশ্ববিদ্যালয়ের পিছনে)

01847 25 88 51
পান্হপথ গ্রিনরোড পান্থপথ সিগনাল থেকে ৫০ গজ পূর্বে (বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্সের দিকে) হাতের ডানে৬৯ / বি, গ্রীনরোড, মনোয়ারা প্লাজা (৩য় তলা) 01847 25 88 52
নীলক্ষেত ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পো: মার্কেট (৩য় তলা) (নীলক্ষেত পেট্রোলপাম্প সংলগ্ন) 01847 25 88 53
মৌচাক ১৮, সিদ্ধেশ্বরী লেন, কালিমন্দির সংলগ্ন (আনারকলি মার্কেটের পিছনে) 01847 25 88 54
উত্তরা বাড়ি # ৫  (৪র্থ তলা) রোড # ১১  সেক্টর ১  (জসীম উদ্দিন বাসস্ট্যান্ড এর পশ্চিম পাশের সাউথইস্ট ব্যাংক এর পিছনে) 01847 25 88 55
যাত্রাবাড়ি ক্যাম্পাস ১ ঃ ৯৮/১ দোলাইরপাড় বাসস্ট্যান্ড (পূবালী ব্যাংকের পাশে) 01847 25 88 62
ক্যাম্পাস ২ ঃ শনির আখড়া  (ব্রিজের পূর্ব পাশে হাক্কানী মসজিদ সংলগ্ন)
পুরনো ঢাকা ৭৩, লক্ষীবাজার, আহসান কমপ্লেক্স (ডিআইটি মার্কেটের বিপরীতে) 01847 25 88 61
লালমাটিয়া বাড়ি নং ৪/এ, রোড নং ২৭ (পুরান), মাইডাস সেন্টারের বিপরীতে ধানমন্ডি সি/এ, ঢাকা -১২০৯ 01847 25 88 74
Show Buttons
Hide Buttons